অঙ্গীকারনামা pdf ডাউনলোড । সোনালী ব্যাংক হতে মৃতদাবী তোলার অঙ্গীকারনামা নমুনা দেখুন

ব্যাংকে টাকা রেখে যদি কেউ মৃত্যুবরণ করে অথবা সরকারি কোষাগারে কোন অর্থ রেখে সরকারি কর্মচারী মারা যান তবে অঙ্গীকার নামা দিতে হয় –অঙ্গীকারনামা word file ডাউনলোড

অঙ্গীকার নামা কি?– অঙ্গীকার বা প্রতিশ্রতি সাধারণ টাকা গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রদান করতে হয়। ফেরতযোগ্য অর্থ বার সরকারি অর্থ গ্রহণের ক্ষেত্রে আপত্তি উত্থাপিত হলে ফেরত দেওয়ার বিষয় আসে বলেই অঙ্গীকার নামা বা গ্যারান্টিপত্র বা প্রত্যয়ন পত্র স্বাক্ষর করতে হয়।

অঙ্গীকার নামায় কি লিখতে হয়? আমরা নিম্নস্বাক্ষরকারী মৃত  মো: জামাল উদ্দিন, পিতা: মৃত আরজ মাতাব্বর, গ্রাম- সুরসুরি,  ডাকঘর- আদর্শনগর, উপজেলা- মোহনগঞ্জ, জেলা- জামালপুর, প্রাক্তন সহকারী প্রধান শিক্ষক, মহিউদ্দিন স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় এবং হালিকা খাতুন, স্বামী-মো: জামাল উদ্দিন,  গ্রাম- সুরসুরি,  ডাকঘর- আদর্শনগর, উপজেলা-মোহনগঞ্জ, জেলা- জামালপুর এর ঔরসজাত সন্তান। সোনালী ব্যাংক লিমিটেড, মোহনগঞ্জ, নেত্রকোনা শাখায় আমাদের পিতার  অনলাইন ভিত্তিক সঞ্চয়ী হিসাব নং- ৩২৪৫৪১৭৪৫৫৬।

তাঁর বেতন ভাতাদি ও অবসরজনিত টাকা উক্ত অ্যাকাউন্টে জমা রয়েছে। মৃত্যুজনিত কারনে আমাদের পিতার অ্যাকাউন্টের টাকা নমিনি হিসেবে আমাদের মাতা হালিমা খাতুন, স্বামী- মো: জামাল উদ্দিন,  গ্রাম- সুরসুরি,  ডাকঘর- আদর্শনগর, উপজেলা- মোহনগঞ্জ, জেলা- জামালপুর উত্তোলন করলে আমাদের কোন আপত্তি নেই। আমরা সজ্ঞানে ও সুস্থ্য মস্তিস্কে কারো কোন প্রবঞ্চনা ব্যাতিরেকে এই অঙ্গীকার করলাম।

অঙ্গীকারনামা pdf । অঙ্গীকারনামা doc । অঙ্গীকারনামা ফরম ডাউনলোড করুন

অঙ্গীকার নামা কিভাবে লিখবেন তার একটি নমুনা দেওয়া হল। পাসপোর্টের তথ্য সংশোধনী অঙ্গীকারনামা (ফরম)

Caption: অঙ্গীকার নামা Word File or PDF Download Link

অঙ্গীকার নামা লেখার নিয়ম ২০২৩ । এটি সাদা কাগজে বা নন জুডিশিয়াল স্ট্যাস্পে লিখতে হয়।

  1. প্রথমত কম্পিউটারে টাইপ করা হতে হবে।
  2. উত্তরাধিকার সনদ বা ওয়ারিশ নামায় যাদের নাম থাকবে তাদের স্বাক্ষর করতে হবে।
  3. একজনকে অর্থ উত্তোলনের ক্ষমতা দিতে হবে।
  4. ভবিষ্যতে আপত্তি আসলে ফেরত দেওয়ার বাধ্যবাধকতা উল্লেখ করতে হবে।
  5. কিসের টাকা এবং কেন উত্তোলন করা হচ্ছে তার স্পষ্ট উল্লেখ থাকতে হবে।
  6. প্রিন্ট কপি কর্তৃপক্ষ বা ইউপি বা পৌরসভার চেয়ারম্যান বা মেয়র দ্বারা প্রতিস্বাক্ষরিত হতে হবে।

অঙ্গীকার নামা কি প্রত্যয়নপত্রের মত হয়?

হ্যাঁ। প্রথমেই লিখতে হয় “এই মর্মে অঙ্গীকার করিতেছি যে, আমার নিকট সরকারের কোন পাওনা থাকলে আমি তা বিধি মোতাবেক পরিশোধ করতে সম্মত আছি। এই পেনশন পরিশোধের পর যে কোন সময়ে অন্যত্র কোন আদায় যোগ্য অর্থের গোচরীভূত হলে তা নিজস্ব সম্পত্তি হতে আমি ফেরৎ প্রদান করতে বাধ্য থাকব।” দ্বিতীয় প্যারায় লিখতে হয় “যদি পরবর্তী সময়ে দেখা যায় যে, বিধি মোতাবেক আমি যে পরিমান অর্থ পেনশন হিসেবে পাওয়ার অধিকারী, আমাকে তা অপেক্ষা বেশি পরিমান অবসর ভাতা/ আনুতোষিক প্রদান করা হয়েছে তা হলে গৃহীত অতিরিক্ত অর্থ নিজস্ব সম্পত্তি হতে আমি ও আমার উত্তররাধিকারী ফেরৎ দিতে বাধ্য থাকব।”

অঙ্গীকার নামা লেখার আরও একটি নমুনা দেখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *