নিজ হিসাবের বিবরণী নিতে অর্থ গুণতে হবে না– কোন প্রকার চার্জ ছাড়াই বছরে ২ বার প্রতিটি গ্রাহককে (আমানত ও ঋণ হিসাবধারী) ব্যাংক স্টেটমেন্ট ও ব্যাল্যান্স কনফার্মেশন সার্টিফিকেট প্রদান করতে দেশের প্রতিটি তফসিলি ব্যাংককে সুস্পষ্ট নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

একই ব্যাংকের অন্য ব্রাঞ্চ হতে বিবরণী নিতে ফি গুনতে হবে- ব্যাংকের আমানত ও ঋণ হিসাবধারী প্রত্যেক গ্রাহককে অর্ধ-বার্ষিক ও বার্ষিক ভিত্তিতে অর্থাৎ বছরে দুবার লেনদেন বিবরণী ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” ই-মেইল/ডাক/কুরিয়ার যােগে আবশ্যিকভাবে প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এতদ্ব্যতীত কোন ধরনের চার্জ আদায়। ব্যতিরেকে এসএমএসের মাধ্যমে লেনদেন বিবরণী” ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” প্রেরণের বিষয়টি গ্রাহককে অবহিত করতে হবে। তবে গ্রাহক স্বশরীরে ব্যাংক সংশ্লিষ্ট শাখায় গমনপূর্বক উক্ত বিবরণী/সনদ সংগ্রহ করতে পারবেন। উভয়ক্ষেত্রে কোনরূপ চার্জ/ফি আদায় করা যাবে না। ব্যাংক আমানত ও ঋণ স্টেটমেন্ট গ্রাহক-কে অর্ধ বার্ষিক ভিত্তিতে ই-মেইল বা কুরিয়ারে প্রেরণের নির্দেশনা ২০২২

ব্যাংক হিসাব বিবরণী আপনার নিজ ব্যাংক হিসাব এবং ব্যাংক শাখা হতে গ্রহণ করতে হবে। আপনার প্রয়োজনে যদি আপনি একই ব্যাংকের নিজ শাখা হতে বছরে দুটি ব্যাংক স্টেটমেন্ট নেন তবে আপনাকে কোন চার্জ গুনতে হবে না। ব্যাংক স্টেটমেন্ট নেয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই দুটি প্রান্তিকে নিতে হবে। যেমন ধরুন জানু হতে জুন এবং জুন হতে ডিসেম্বর পর্যন্ত । একই সাথে দুই বছরের বা অধিক সময়ের ব্যাংক স্টেটমেন্টের ক্ষেত্রে চার্জ প্রযোজ্য হইবে। চার্জ হিসেবে ১০০ টাকা এবং কমিশন ১৫ টাকা সহ সর্বমোট ১১৫ টাকা চার্জ গুণতে হবে।

ব্যাংক হিসাব বিবরণী চার্জ কত? / ব্যাংক হিসাব বিবরণী নাকি গ্রাহকের জন্য ফ্রি?

কোন প্রকার চার্জ ছাড়াই বছরে ২ বার প্রতিটি গ্রাহককে (আমানত ও ঋণ হিসাবধারী) ব্যাংক স্টেটমেন্ট ও ব্যাল্যান্স কনফার্মেশন সার্টিফিকেট প্রদান করতে দেশের প্রতিটি তফসিলি ব্যাংককে সুস্পষ্ট নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ব্যাংক-আমানত-ও-ঋণ-স্টেটমেন্ট-গ্রাহক-কে-প্রেরণের-নির্দেশনা-২০২২

বি:দ্র: অনেক করদাতা ব্যাংক চার্জের টাকা বাঁচাতে ট্যাক্স রিটার্নের সাথে ব্যাংক স্টেটমেন্ট দেন না। এতে করদাতা পরবর্তীতে ঝামেলায় পড়েন।

হিসাবেরর বিবরণী গ্রহণে ব্যাংক চার্জ নেয়া হবে না এ সংক্রান্ত নির্দেশনা ২০২২

  1. বিআরপিডি সার্কুলার নং-০৪/২০০১ এর মাধ্যমে তফসিলি ব্যাংকসমূহে জাল-জালিয়াতি রােধকল্পে ব্যাংকসমূহ কর্তৃক হিসাবধারীগণকে নিয়মিতভাবে অর্ধ-বার্ষিক ভিত্তিতে লেনদেন বিবরণী প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে ২২ মে ২০১৩ তারিখে বিআরপিডিপি-১)/৬৬১/১৩/২০১৩-২৪০৫ নং পত্রের মাধ্যমে জাল-জালিয়াতি রােধকল্পে ব্যাংকের আমানত ও ঋণ হিসাবধারী প্রত্যেক গ্রাহককে নিয়মিতভাবে অর্ধ-বার্ষিক ভিত্তিতে লেনদেন বিবরণী” ই-মেইল/ডাক/কুরিয়ার যােগে প্রেরণের জন্য পুনরায় নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এছাড়া, বিআরপিডি সার্কুলার নং-১১/২০২১ এর ০৩(ঘ)(১) অনুচ্ছেদে অর্ধ-বার্ষিক ও বার্ষিক ভিত্তিতে অর্থাৎ বছরে দুবার ব্যাংকের আমানত ও ঋণ হিসাবধারী প্রত্যেক গ্রাহককে হিসাবের স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ (হিসাব বিবরণীসহ) প্রদানের জন্য ব্যাংক কর্তৃক কোন চার্জ/ফি আদায় করা যাবে না মর্মে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। এতদবিষয়ে বর্ণিত নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও কোন কোন ব্যাংক কর্তৃক গ্রাহকের চাহিদা মােতাবেক লেনদেন বিবরণী” ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” গ্রাহককে প্রদান করা হচ্ছে না, যা উক্ত নির্দেশনার লঙ্ঘন।

     

  2. ৩।গ্রাহক স্বার্থ সংরক্ষণ, তফসিলি ব্যাংকসমূহে জাল-জালিয়াতি রােধকল্পে ও পরিবেশবান্ধব ব্যাংকিং নীতিমালার বাস্তবায়ন নিশ্চিতকল্পে ব্যাংকের গ্রাহককে লেনদেন বিবরণী” ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” প্রেরণের ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত বিষয়াবলী যথাযথভাবে অনুসরণের জন্য পুনরায় নির্দেশনা প্রদান করা হলাে:

     

  3. ব্যাংকের আমানত ও ঋণ হিসাবধারী প্রত্যেক গ্রাহককে অর্ধ-বার্ষিক ও বার্ষিক ভিত্তিতে অর্থাৎ বছরে দুবার লেনদেন বিবরণী ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” ই-মেইল/ডাক/কুরিয়ার যােগে আবশ্যিকভাবে প্রেরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এতদ্ব্যতীত কোন ধরনের চার্জ আদায়। ব্যতিরেকে এসএমএসের মাধ্যমে লেনদেন বিবরণী” ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” প্রেরণের বিষয়টি গ্রাহককে অবহিত করতে হবে। তবে গ্রাহক স্বশরীরে ব্যাংক সংশ্লিষ্ট শাখায় গমনপূর্বক উক্ত বিবরণী/সনদ সংগ্রহ করতে পারবেন। উভয়ক্ষেত্রে কোনরূপ চার্জ/ফি আদায় করা যাবে না;

     

  4. হিসাব খােলার ফরমে গ্রাহক কর্তৃক প্রদত্ত মেইলিং ঠিকানা ও মােবাইল নম্বরের সঠিকতা যাচাই করতে হবে এবং ন্যূনতম বার্ষিক ভিত্তিতে তা হালনাগাদ করতে হবে;
  5.  

    হিসাব সম্পর্কিত প্রতিটি লেনদেন তাৎক্ষণিকভাবে এসএমএসের মাধ্যমে গ্রাহকের সম্মতি সাপেক্ষে অবহিতকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে;

  6.  

    অধিকন্তু ব্যাংকের নিজস্ব ইন্টারনেট ব্যাংকিং এবং মােবাইল অ্যাপস-এর মাধ্যমে গ্রাহককে তথ্য ও সেবা প্রদান করা যাবে। তবে তথ্য সরবরাহের ক্ষেত্রে ব্যাংকের নিজস্ব ইন্টারনেট ব্যাংকিং এবং মােবাইল অ্যাপস ব্যতীত সােশ্যাল মিডিয়াসহ অন্য কোন মাধ্যম ব্যবহার হতে বিরত থাকতে হবে;

    ঙ) গ্রাহককে প্রেরিত লেনদেন বিবরণী” ও “স্থিতি নিশ্চিতকরণ সনদ” এর অনুলিপি হার্ডকপির পরিবর্তে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে সংরক্ষণ করা যাবে; এবং

  7.  

    তথ্যের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে ব্যাংক কর্তৃক প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

     

  8. ব্যাংক কোম্পানী আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করেছে। সূত্র: বাংলাদশ ব্যাংক পরিপত্র

যদি কোন ব্যাংক নিজ হিসাবের বিবরণী নিতে চার্জ চায়?

তবে অবশ্যই আপনি চার্জ দিবেন না –যে সমস্থ ব্যাংক এই নির্দেশনা না মেনে চার্জ আরোপ করে তাদের বিরুদ্ধে “আর্থিক সততা ও গ্রাহক পরিষেবা বিভাগ (FICSD)” অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। অভিযোগ দায়ের করতে Dial 16236 করুন অথবা
e-mail: bb.cipc@bb.org.bd ঠিকানায় ইমেইল করুন অথবা Fax :0088-02-9530464 ফ্যাক্স করুন। তবে অবশ্যই প্রমানক সহ অভিযোগ করবেন।